,

দম ফেলার ফুসরত নেই কামারদের

আকাশবার্তা ডেস্ক :

দরজায় কড়া নাড়ছে পবিত্র ঈদুল আজহা। তাই ব্যস্ততা বেড়েছে কামারদের। টুংটাং, ঢুংঢাং শব্দে মুখরিত কামারপাড়া। কুরবানির প্রধান অনুষঙ্গ দা, বটি, ছুরি-চাপাতি। এসব ছাড়া তো আর কুরবানি হয় না। তাই এগুলো শান দিতে আর বিক্রি করতে কামারপাড়ার কামাররা দিন-রাত এতটাই ব্যস্ত যে, দম ফেলার ফুসরত নেই তাদের।

অন্য সময়ের তুলনায় চাহিদা বেশি থাকায় শান দেয়ার মজুরি ও দাম কিছুটা বেশি হলেও ঈদের আনন্দের কাছে ভাটা পড়েছে সেই আক্ষেপ। কামারদের দাবি ঈদের বাজার হিসাবে দাম ঠিকই আছে। লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জে কামারপাড়া ঘুরে এমনই দৃশ্য দেখা গেছে। এতটুকু অবসর নেই কামারপাড়ার মানুষগুলোর।

bestelectronics

কামারদের আয়ের সবচেয়ে বড় মৌসুম কুরবানির ঈদ। তাই কেউ হাতুড়ি পেটাচ্ছেন, কেউ লোহা পুড়িয়ে লাল করছেন, কেউবা দিচ্ছেন শান। বাড়তি আয়ের আশায় অতিরিক্ত সময় কাজ করছেন কামাররা। কাজের চাপে কামাররা কষ্ট করে বেশি পরিশ্রমে ক্রেতাদের চাহিদা পূরণ করছেন। তাই খরচা একটু বেশি লাগলেও আত্মতুষ্টিতে ক্রেতারা।

চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় আগে থেকেই তৈরি করে রাখা ধারালো সরঞ্জামের বাজার অনেকটা জমজমাট। বিক্রিও হচ্ছে ভালো। দাম নিয়ে খুব একটা অভিযোগ নেই ক্রেতাদের। ঈদ যত ঘনিয়ে আসছে, বেচা-বিক্রি ততই বাড়ছে বলে জানিয়েছেন বিক্রেতারা।

     এই বিভাগের আরও সংবাদ

আর্কাইভ

আগষ্ট ২০১৯
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« জুলাই    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  
}