বুধবার ৭ই ডিসেম্বর, ২০২২ ইং ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

২২তম আসরের পর্দা উঠছে কাল

স্পোর্টস ডেস্ক : 

ফিফা বিশ্বকাপ; যাকে বলা হয় দ্যা গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ। ২২তম আসর; ৩২টি দল; একটি ট্রফি! যার জন্য লড়বে বিশ্বের ৩২টি ফুটবল দল। ২০২২ ফুটবল বিশ্বকাপ দামামার শব্দে উৎসবে মেতে উঠেছে সারা বিশ্বের ফুটবলপ্রেমীরা। ফুটবলের আমেজে আনন্দ-উৎসবে একাকার হয়ে গেছে সারা বিশ্ব। ফুটবলপ্রেমীরা এই এক মাসের জন্য হয়ে গেছে বি বিশ্বনাগরিক।

৪ বছর অপেক্ষার পার রোববার (২০ নভেম্বর) পর্দা উঠছে বিশ্বকাপের ২২তম আসরের। মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কাতারে এবার অনুষ্ঠিত হবে এই ফুটবল মহাযজ্ঞের। এবারই প্রথম মধ্যপ্রাচ্যের দেশ হিসেবে এককভাবে বিশ্বকাপের আয়োজন করছে কাতার। এর আগে অবশ্য ২০০২ সালে যৌথভাবে বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ ছিল দ. কোরিয়া ও জাপান।

এতগুলো দেশ এই টুর্নামেন্টে অংশ নিলেও ২১টি আসরে এ পর্যন্ত বিশ্বকাপের ট্রফি স্পর্শ করতে পেরেছে মাত্র ৮টি দেশ। সর্বোচ্চ ৫বার বিশ্বকাপ জিতেছে লাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল। এরপরেই আছে জার্মানি; তারা বিশ্বকাপ জিতেছে মোট ৪বার। জার্মানির সমান ৪ বার বিশ্বকাপ জিতেছে ইতালি। তবে এবারই টানা দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপ থেকে বাদ পড়েছে ৪বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন এই দলটি।

লাটিন আমেরিকার আরেক দেশ আর্জেন্টিনা; তারা বিশ্বকাপ জিতেছে দুইবার। সর্বপ্রথম বিশ্বকাপ জেতা উরুগুয়েও চ্যাম্পিয়ন হয়েছে দুইবার। ইউরোপের দেশ বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স; তারাও বিশ্বকাপ জিতেছে দুইবার। ১৯৬৬ সালে একবার বিশ্বকাপ জিতেছিল ইংল্যান্ড।

২০১০ সালে প্রথমবার বিশ্বকাপের স্বাদ গ্রহণ করেছে স্পেন। এই ৮ দল ছাড়া এ পর্যন্ত আর কোনো দল জিততে পারেনি বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপের এই ট্রফিতে চুমু খাওয়া মোটেও সহজ কাজ নয়। রীতিমতো যুদ্ধ করতে হয় এই ট্রফিকে ছুতে হলে। কাতারের আল-খোরের আল-বায়াত স্টেডিয়ামে উদ্বোধনী ম্যাচে।

রোববার (২০ নভেম্বর) রাত ১০টায় মুখোমুখি হবে গ্রুপ-এ’র দুই দল ইকুয়েডর ও স্বাগতিক কাতার। বিশ্বকাপে কাতারের এটি প্রথম অংশগ্রহণ। স্বাগতিক হিসেবে কাতার সরাসরি বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে। অন্যদিকে আট বছর অনুপস্থিত থাকার পর বিশ্বকাপে ফিরেছে ইকুয়েডর। কাগজে কলমে কাতারের থেকে বেশ খানিকটা এগিয়ে রয়েছে ইকুয়েডর। যে কারণে ম্যাচটিতে জয়ের সম্ভাবনায়ও এগিয়ে রয়েছে সফরকারীরা।

দক্ষিণ আমেরিকান বাছাইপর্বে কঠিন চ্যালেঞ্জ পেরিয়ে ইকুয়েডর চতর্থ স্থান লাভ করে বিশ্বকাপ নিশ্চিত করেছে। কিন্তু স্বাগতিক হিসেবে ঘরের মাঠের বাড়তি সুবিধা পুরোপুরি কাজে লাগাতে প্রস্তুত কাতার। বিশ্বকাপের ইতিহাসে এ পর্যন্ত উদ্বোধনী ম্যাচে কোন স্বাগতিক দল হারেনি। সেদিক থেকে হয়তো কিছুটা এগিয়ে থাকবে কাতার।

১৯৭৮ সালের পর বিশ্বকাপে উদ্বোধনী কোন ম্যাচ গোলশুন্য ভাবে শেষ হয়নি। কাতার এ পর্যন্ত টানা পাঁচ ম্যাচে অপরাজিত রয়েছে। সেপ্টেম্বরে চিলির সাথে ২-২ গোলে করার পর একে একে কাতার হারিয়েছে গুয়াতেমালা, হন্ডুরাস, পানামা ও আলবেনিয়াকে। এ জয়গুলোই হয়তো বাড়তি আত্মবিশ্বাস যোগাচ্ছে কাতারকে।

গত পাঁচ বছর ধরে স্প্যানিশ কোচ ফেলিক্স সানচেজ বাসের অধীনে কাতার নিজেদের ধীরে ধীরে প্রস্তুত করেছে। এত বড় আসরে অতীতে খেলার অভিজ্ঞতা না থাকায় অনেক কিছুতেই তাদের মানিয়ে নেয়াটাও একটি বড় চ্যালেঞ্জ। গ্রুপ-এ’র অপর দুটি দল হচ্ছে সেনেগাল ও নেদারল্যান্ড। কাতারের লক্ষ্য স্বাগতিক হিসেবে নিজেদের সেরাটা দিয়ে যতটা সম্ভব সবাইকে আকৃষ্ট করা, ভাল খেলা উপহার দেয়া। আফ্রিকান নেশন্স কপ বিজয়ী সেনেগাল। এর আগে ২০১০ বিশ্বকাপের ফাইনালিস্ট নেদারল্যান্ড।

এদিকে বিশ্বকাপের আগে পাঁচটি প্রীতি ম্যাচের কোনটিতেই কোন গোল হজম করেনি ইকুয়েডর। গত শনিবার সর্বশেষ ইরাকের বিপক্ষে গোলশুন্য ড্র করেছে তারা। দুই বছর আগে দলের দায়িত্ব পাওয়া আর্জেন্টাইন কোচ গুস্তাভো আলফারোর অধীনে এভাবেই পুরো ইকুয়েডর বিশ্বকাপের আগে আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর চেষ্টা করেছে।

কাতার এর আগে তিনবার ইকুয়েডরের বিপক্ষে ঘরের মাঠে খেলেছে যার মধ্যে একটিতে জয়, একটি ড্র ও একটি পরাজিত হয়েছে। আলবেনিয়ার বিপক্ষে শেষ প্রীতি ম্যাচে এ্যাটাকার আহমেদ আয়েলদিন ইনজুরিতে পড়ে ২৬ মিনিটে মাঠ ছাড়েন। এই একটি ইনজুরি ছাড়া আপাতত কোন ঝুঁকি নেই কাতার শিবিরে।

যদিও কাতারের মেডিকেল টিম আশ্বস্ত করেছন আয়েলদিনের ইনজুরি ততটা গুরুতর নয়। এদিকে কাতারের পাঁচটি শহরের ৮ স্টেডিয়ামে বিশ্বকাপের সর্বমোট ৬৪টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ১৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে বিশ্বকাপের এই উন্মাদনা।

অন্যদিকে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচের আগে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে। বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় শুরু হবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠান চলবে টানা ৪৫ মিনিট। পরে রাত ১০টায় উদ্বোধনী ম্যাচে ইকুয়েডরের বিপক্ষে মাঠে নামবে স্বাগতিক কাতার। দেশটির খোর শহরের আল বায়াত স্টেডিয়ামে হবে এ সকল আয়োজন।

স্টেডিয়ামটিতে এক সঙ্গে ৬০ হাজার দর্শক বসতে পারবেন। এটি কাতারের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্টেডিয়াম। ৮০ হাজার ধারণক্ষমতার লুসাইল স্টেডিয়ামটি সবচেয়ে বড়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আমেরিকান গায়ক ডমিনিক লিল ববি ও বলিউড সুপারস্টার নোরা ফাতেহিসহ চমক আছে বিটিএস ফ্যানদের জন্য।

এবারের আসরের থিম সং ‘দ্য ওয়ার্ল্ড ইজ ইওরস টু টেক’ গাইবেন ববি। গানের সঙ্গে মঞ্চ মাতাবেন মানাল, রেহমার এবং নোরা ফাতেহি। এই মুহূর্তে বলিউডের সেরা নৃত্যশিল্পীদের তালিকায় রয়েছেন নোরা। এর বাইরে বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশে তুমুল আলোচনা-সমালোচনার কোরিয়ান ব্যান্ড বিটিএসের সংগীত পরিবেশনাও থাকবে।

ব্যান্ডটির সর্বকনিষ্ঠ সদস্য জন জাংকুক গাইবেন উদ্বোধনী মঞ্চে। এ ছাড়া স্থানীয় নৃত্যশিল্পীরাও আল বায়াত স্টেডিয়ামে পারফর্ম করার সুযোগ পাবেন। কাতার বিশ্বকাপের অফিসিয়াল মাসকট লা’ইব। যার অর্থ ‘অতি দক্ষ খেলোয়াড়’। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজনে এই মাসকট প্রদর্শনীও চলবে। ধারণা করা হচ্ছে, এবারের বিশ্বকাপের দিকে চোখ থাকবে প্রায় ৫০০ কোটি মানুষের। যা পৃথিবীর মোট জনসংখ্যার অর্ধেকেরও বেশি।

বিশ্বকাপে এবার নতুন যা থাকছে :

  • এই প্রথম শীত মৌসুমে হতে যাচ্ছে ফিফা বিশ্বকাপ
  • মধ্যপ্রাচ্যের প্রথম কোন দেশ হিসেবে এবারের বিশ্বকাপ আয়োজন করছে কাতার।
  • বিশ্বকাপের ইতিহাসে এবারই প্রথম ৫ জন খেলোয়াড় বদল করার সুযোগ থাকছে।
  • এবারই প্রথম পুরুষ বিশ্বকাপের ম্যাচ পরিচালনার সুযোগ পাচ্ছেন নারী রেফারিরা। ৩৬ জন প্রধান রেফারির মধ্যে তালিকায় আছেন ইমোশিতা ইওশিমি, সালিমা মুকাসাঙ্গা ও স্টেফানি ফ্যাপোর্ট। সহকারি রেফারি হিসেবেও কাজ করবেন তিন নারী।
  • অফসাইড ধরতে এবারই প্রথম সেমি অটোমেটেড প্রযুক্তি ব্যবহার করা হবে। বিশ্বকাপের বলগুলোর ভেতরে লাগানো থাকবে এক ধরনের সেন্সর। এরমধ্যে রেফারির খেলোয়াড়দের স্পর্শের সঙ্গে বিচার করে বলের পজিশন যাচাই করতে পারবেন।
  • এই প্রথম সম্পূর্ণ শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো।

     এই বিভাগের আরও সংবাদ

আর্কাইভ

ডিসেম্বর ২০২২
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« নভেম্বর    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১